Text size A A A
Color C C C C
পাতা

সিটিজেন চার্টার

o বিআরডিবি’র পরিচিতিঃ

বাংলাদেশ পল্লী উন্নয়নবোর্ড (বিআরডিবি) পল্লী উন্নয়নও সমবায় বিভাগের আওতাধীন পল্লী উন্নয়নও দারিদ্র বিমোচনে নিয়োজিত দেশের সর্ববৃহৎ সরকারী প্রতিষ্ঠান। পল্লীর ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষক, বিত্তহীন পুরুষ ও মহিলা জনগোষ্ঠিকে সমবায় সমিতি ও অনানুষ্ঠানিক দলে সংগঠিত করে প্রয়োজনীয় সেবা ও উপকরণ সরবরাহের মাধ্যমে বিআরডিবি কৃষি উৎপাদন বৃদ্ধি, আত্মকর্মসংসহান সৃষ্টির মাধ্যমে পল্লী উন্নয়ন, দারিদ্র্য নিরসন এবং নারীর ক্ষমতায়নে নিরবাচ্ছিন্নভাবে কাজ করছে । বোর্ডের কার্যক্রম ২১ সদস্য বিশিষ্ট একটি পরিচালনা পর্ষদের মাধ্যমে পরিচালিত হয়ে থাকে। স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়নও সমবায় মন্ত্রনালয়ের মাননীয় মন্ত্রী/ উপদেষ্টা বোর্ডের সভাপতি, পল্লী উন্নয়নও সমবায় বিভাগের সচিব সহ-সভাপতি, মহাপরিচালক (বিআরডিবি) প্রধান নির্বাহী ও সদস্য সচিব এবং সংশ্লিষ্ট অন্যান্য মন্ত্রনালয়/বিভাগ ও সংস্থার প্রতিনিধি বোর্ডের সদস্য হিসাবে দায়িত্ব পালন করে থাকেন ।

 

মহাপরিচালকের সার্বিক তত্বাবধানে ৫৮ টি জেলা এবং ৪৭৬ টি উপজেলা দপ্তরের মাধ্যমে বিভাগীয় পরিচালকগণ বোর্ডের যাবতীয় কার্যক্রমপরিচালনা করেন। জেলা পর্যায়ে একজন উপপরিচালক এবং উপজেলা পর্যায়ে ১ জন পল্লী উন্নয়নম অফিসার তাঁদের অধীনস্ত অন্যান্য কর্মকর্তা/কর্মচারীদের সহায়তায় বোর্ডের কার্যক্রম বাস্তবায়ন করে থাকেন।

 

বাংলাদেশ পল্লী উন্নয়নবোর্ড জেলা ও উপজেলা দপ্তরের মাধ্যমে নিমেণ বর্ণিত সেবাসমূহ প্রদান করে থাকেঃ

১. ক্ষুদ্র এবং মাঝারি কৃষকগণ কৃষক সমবায় সমিতি এবং মহিলারা মহিলা সমবায় সমিতির সদস্য হতে পারেন ।

২. ক্ষুদ্র কৃষক ও প্রান্তিক চাষী এবং বিওহীন পুরুষ ও মহিলারা যথাক্রমে পুরুষ ও মহিলা দলের সদস্য হতে পারেন ।

৩. গ্রামে স্থায়ী ভাবে বসবাস করেন, কায়ীক পরিশ্রমের উপর নিভর্রশীল ,সহায়ী আয়ের অন্য কোন উৎস নেই, অন্য কোন সংগঠনের সাথে সম্পৃক্ত নয় বা অন্য কোন প্রতিষ্ঠানের নিকট ঋণী নয় এমন ১৮ থেকে ৫৫ বছরের যে কোন পুরুষও মহিলা বিওহীন পুরুষ/মহিলা দলের সদস্য হতে পারেন ।

৪. সদস্য পদ গ্রহণের পর দলের যাবতীয় আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন সাপেক্ষে ১ জন সদস্য ৩ মাসের মধ্যে ঋণ পেতে পারেন ।

৫. কোন রকম জামানত ছাড়াই ২০০৩ এর ক্ষুদ্র ঋণ নীতিমালার আলোকে ঋণ প্রদান করা হয় ।

৬. উপকারভোগীরা সামাজিক সচেতনতা ও দক্ষতা বৃদ্ধি কল্পে আয়বর্ধক কর্মকান্ডের উপর প্রশিক্ষণ পেয়ে থাকেন ।

৭. আয় বৃদ্ধি মূলক কর্মকান্ড বাস্তবায়নের জন্য উপকারভোগী সদস্য ৫,০০০/- টাকা থেকে ১৫,০০০/- টাকা পর্যমত্ম ঋণ পেয়ে থাকেন।

৮. ঋণের যাবতীয় কাগজপত্র উপজেলা দপ্তর থেকে সরবরাহ করা হয়ে থাকে ।

৯. উপকারভোগী সদস্যগণ ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র সঞ্চয় জমার মাধ্যমে নিজস্ব পুঁজি গঠন করে থাকেন

১০.পরিবারের ২ জন সদস্য ( ১ জন পুরুষ ও ১জন মহিলা ) পৃথক পৃথক ভাবে পুরুষও মহিলা দলের সদস্য হতে পারেন ।

  বিআরডিবি’র সেবা সম্পর্কে বিস্তারিত জানার জন্য উপজেলা পল্লী উন্নয়ন অফিসারের সাথে যোগাযোগ করা যেতে পারে।